Bangladesh Education Latest Update News 2018

Bangladesh Education Latest Update News. There is no quota for the Eleventh class admission in the academic year 2018-19. 100 percent seats will admit on merit basis. The Ministry of Education has finalized this policy. Today (Monday) Secretary of the Ministry of Education and Secondary and Higher Education Department. This policy was finalized in a meeting held in the chairmanship of Sohrab Hossain.
The results of the SSC examination will publish on May 6. After this, the admission process for the XI will start on May 24.

Bangladesh Education Latest Update News 2018

This time, a student can apply for admission in at least 5 and maximum 10 colleges. Online and SMS can apply in both ways. As soon as admission, the students of their organization will get priority in admission

The Ministry of Education says, if there is a special priority quota applicant after admission on a merit basis, then the total seats can admit in the quoted quote. If the candidate is not available in the quota, these seats will not have the effectiveness.

একাদশে ভর্তিতে কোটা নাই, শতভাগ মেধা

Bangladesh Education Latest Update News 2018

 

২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণির ভর্তিতে কোনো কোটা থাকছে না। শতভাগ আসন মেধার ভিত্তিতে ভর্তি করা হবে। এ সংক্রান্ত নীতিমালা চূড়ান্ত করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।আজ (সোমবার) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ নীতিমালা চূড়ান্ত করা হয়।আগামী ৬ মে এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে। এরপর একাদশে ভর্তির আবেদন কার্যক্রম শুরু হবে আগামী ১৩ মে থেকে শেষ হবে ২৪ মে।নীতিমালা অনুযায়ী, এবারও একজন শিক্ষার্থী কমপক্ষে ৫টি এবং সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে ভর্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। অনলাইন ও এসএমএস উভয় পদ্ধতিতেই আবেদন করা যাবে। ভর্তিতে আগের মতো এবারও নিজ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ভর্তিতে অগ্রাধিকার পাবে।

শতভাগ মেধা দিয়েই ভর্তি

শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তবে মেধার ভিত্তিতে ভর্তির পর যদি কোনো বিশেষ অগ্রাধিকার কোটার আবেদনকারী থাকে, তা হলে মোট আসনের অতিরিক্ত হিসাবে নির্ধারিত কোটায় ভর্তি করা যাবে। কোটায় যদি প্রার্থী না পাওয়া যায়, তবে এ আসনগুলোর কার্যকারিতা থাকবে না।গত বছর ৮৯ শতাংশ আসন সবার জন্য উন্মুক্ত রেখে বাকি ১১ শতাংশ নির্ধারিত কোটার প্রার্থীদের জন্য সংরক্ষিত ছিল। কোটায় প্রার্থী না পাওয়া গেলে সে আসনগুলো সাধারণ কোটার প্রার্থীদের দিয়ে পূরণ করা হতো।উল্লেখ্য নির্ধারিত কোটাগুলো হচ্ছে- ৫ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বা তাদের সন্তানদের জন্য, ৩ শতাংশ বিভাগীয় ও জেলা সদরের বাইরের শিক্ষার্থীদের জন্য, ২ শতাংশ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধস্তন দপ্তরগুলো ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের জন্য, শূন্য দশমিক ৫ শতাংশ বিকেএসপির জন্য এবং শূন্য দশমিক ৫ শতাংশ প্রবাসীর সন্তানদের জন্য সংরক্ষিত।নীতিমালা অনূযায়ী, ভর্তির জন্য অনলাইন ও এসএমএসে আবেদন গ্রহণ শুরু হবে আগামী ১৩ মে থেকে। আবেদনের শেষ সময় ২৪ মে। তবে ফল পুনর্নিরীক্ষণে যাদের ফল পরিবর্তন হবে, তাদের আবেদন আগামী ৫ ও ৬ জুন গ্রহণ করা হবে। প্রথম পর্যায়ে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের ফল প্রকাশ করা হবে ১০ জুন। এর পর আরও একাধিক ধাপে ফল প্রকাশ ও মাইগ্রেশনসহ অন্যান্য আনুষঙ্গিক কাজ শেষ করে ২৭ থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ভর্তি কার্যক্রম চলবে। আগামী ১ জুলাই থেকে ক্লাস শুরু হবে। সূত্র: আরটিভিঅনলাইন ডেস্ক। পোষ্টটি শেয়ার করুন আপনার সকল বন্ধুদের সাথে।



Dailyjobsbd.com © 2017